Image

বর্তমান ঠিকানা

স্থায়ী ঠিকানা

অভিভাবক -১-মাতা

অভিভাবক -২-পিতা

অভিভাবক -(প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)

আউটডোর(যেকোন ২টিতে টিক দিতে পারবে)

ইনডোর (যেকোন ১টিতে টিক দিতে পারবে)

প্রিয় শখ (যেকোন ২টিতে টিক দিতে পারবে)

ক্লাব (যেকোন ২টিতে টিক দিতে পারবে )

নিয়মাবলী (সম্মানিত অভিভাবকদের জন্য )

১। প্রতিমাসের টিউশন ফি অগ্রিম প্রদান করতে হবে (১৫ তারিখের মধ্যে) । অন্যথায় ৫% জরিমানা প্রযোজ্য হবে। টিউশন ফি অভিভাবক দিবসে সরাসরি প্রতিষ্ঠানের অফিসে অথবা যেকোনো দিন ব্যাংক একাউন্টে জমাপ্রদান করে তথ্যটি অফিস মোবাইলে ফোন/ এস.এম.এস/ মেইল করে জানাতে হবে।

২। অভিভাবক দিবসে প্রতিষ্ঠান প্রদত্ত আই.ডি কার্ডধারী ছাড়া অন্য কেউ প্রবেশ করা যাবে না। আপনার সন্তানদের নিরাপত্তার স্বার্থে ১০ বছরের অধিক বয়সের কোনো ছেলেকে সাথে আনা যাবে না। অভিভাবক দিবসে শিক্ষার্থীকে নিয়ে বাইরে যাওয়া যাবে না।

৩। প্রতিষ্ঠানকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন ও জীবানুমুক্ত রাখার স্বার্থে যেকোনো ধরনের রান্না করা খাবার আনা নিষিদ্ধ।

৪। ভারতেশ্বরী হোমস্ সম্পূর্ন আবাসিক প্রতিষ্ঠান এবং আসন সংখ্যা নির্দিষ্ট। তাই ভর্তির পর বছরের মধ্যবর্তি কোনো সময় টি.সি নিতে চাইলে বছরের অবশিষ্ট সময়ের টিউশন ফির কমপক্ষে ৫০% প্রদান করতে হবে।

৫। শিক্ষার্থীকে ছুটিতে বাড়ি নেয়ার সময় কেবলমাত্র মা-বাবা অথবা অনুমোদিত অভিভাবককে আসতে হবে।

৬। শিক্ষার্থীদের নিরবিচ্ছিন্ন লেখাপড়ার স্বার্থে বছরে দুটি ঈদ, দুর্গাপূজা ও শীতকালীন/গ্রীষ্মকালীন বড় ছুটি ছাড়া শিক্ষার্থীদের বাড়ি যাবার জন্য ছুটি দেয়া হবে না।

৭। শিক্ষার্থী অসুস্থ হলে প্রতিষ্ঠানে অবস্থানরত নার্স পর্যবেক্ষন করেন, ডাক্তার দেখান ও প্রয়োজনীয় ঔষধ খাওয়ান। অভিভাবকদের শুধুমাত্র পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও ঔষধের খরচ বহন করতে হবে। অসুখটি সংক্রামক হলে অভিভাবককে অবহিত করার সাথে সাথে শিক্ষার্থীকে নিয়ে যেতে হবে।

নিয়মাবলী (শিক্ষার্থীর জন্য )

১। শিক্ষার্থী কোন অবস্থাতেই মোবাইল ফোন রাখতে পারবে না। প্রয়োজনে প্রতি সপ্তাহে ১ দিন মাদার টিচারের সহায়তায় অভিভাবকের সাথে কথা বলতে পারবে।

২। পড়ালেখার পাশাপাশি প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে নিয়মিত শরীরচর্চা, কো-কারিকুলার কার্যক্রমে অংশ নিতে হবে।

৩। প্রত্যেক শিক্ষক এবং হোষ্টেল ষ্টাফদের সম্মান করা এবং তাদের নির্দেশমত চলা শিক্ষার্থীদের একান্ত কর্তব্য। তাই এর ব্যতিক্রম ঘটানো যাবে না।

৪। হোষ্টেলে বড়দের সম্মান করা ও ছোটদের ভালবাসতে হবে এবং হোষ্টেলের নিয়মকানুন ও শৃঙ্খলা মেনে চলতে হবে।

৫। নিজ শ্রেণিকক্ষ, থাকার স্থানসহ ব্যক্তিগত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অবশ্যই বজায় রাখতে হবে।

৬। প্রতিষ্ঠানের দৈনন্দিন রূটিন ও স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে মেনে চলতে হবে।

৭। অত্র প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতার আদর্শ ধারণ করে নিজেকে সুনাগরিক হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করার মহান ব্রত ধারণ করতে হবে।